জাতীয়
শিরোনাম

রাজনৈতিক সমর্থন প্রয়োজন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার: হাসিনা

জার্মানির মিউনিখে স্বাস্থ্য নিরাপত্তা বিষয়ক একটি গোলটেবিল আলোচনায় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ক্ষমতার অভাবসহ নানা কারণে সংস্থাটি প্রায়ই সঠিক পদক্ষেপ নিতে পারে না৷

জাতীয় ডেস্ক: মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলন আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হবার আগে স্বাস্থ্য বিষয়ক এই গোলটেবিল আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়৷ সেখানে শেখ হাসিনা বলেন, ‘‘সংকটের ব্যাপকতা, সম্পদ ও ক্ষমতার অভাবের কারণে ডাব্লিউএইচও প্রায়ই ভুল সিদ্ধান্ত নেয়৷ তবে সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে নিয়োজিত আমাদের এই মুখ্য মানবিক সংস্থাটির উচ্চ পর্যায়ের রাজনৈতিক সমর্থন প্রাপ্য৷’’

তিনি রাষ্ট্রগুলোর সঙ্গে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার আরো নিবিড়ভাবে যুক্ত হয়ে কাজ করার ওপর জোর দেন৷ সেইসঙ্গে বলেন, স্বাস্থ্য নিরাপত্তা রক্ষায় আরো বেশি অর্থায়নের প্রয়োজন৷

৫৫তম মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনের প্রথম দিনে ছিল এই ‘হেলথ ইন ক্রাইসেস-ডাব্লিউএইচও কেয়ার্স’ শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনা৷ সেখানে যোগ দিয়ে শেখ হাসিনা স্বাস্থ্য সুরক্ষায় কার্যকরী আন্তর্জাতিক সহযোগিতার ভিত্তি তৈরি করার ওপর জোর দেন৷ তিনি বলেন, স্বাস্থ্য সুরক্ষা মানুষের মৌলিক চাহিদা, তা পূরণ করতে হবে৷

‘‘এটা খুবই দুর্ভাগ্যজনক যে, আমরা মানুষের জন্য প্রকৃত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে পারছি না, যেখানে এসডিজি-৩-এ একে মৌলিক প্রতিশ্রুতি হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে,’’ বলেন তিনি৷

তিনি উন্নয়নশীল ও এলডিসি দেশগুলোর জন্য জরুরি অর্থায়ন প্রয়োজন বলে উল্লেখ করেন৷

বাংলাদেশে স্বাস্থ্য খাতের উন্নয়নে সরকার নানা পদক্ষেপ নিয়ে চলেছে বলে উল্লেখ করেন তিনি৷ ‘‘আমাদের উদ্যোগের কারণে আজ আমরা ‘কম খরচে উন্নত স্বাস্থ্যসেবা’ দেয়ার রোল মডেলে পরিণত হয়েছি৷’’

তিনি বলেন, বাংলাদেশে মাতৃমৃত্যুর হার লাখ প্রতি ১৭২ জন, শিশু মৃত্যুর হার প্রতি হাজারে ২৪ জন ও পাঁচ বছরের নীচে শিশু মৃত্যুর হার হাজারে ৩১ জনে নামিয়ে আনা হয়েছে৷

দেশে সবার জন্য সুচিকিৎসা নিশ্চিতে গত তিন দশক ধরে বাংলাদেশ সরকার কাজ করে যাচ্ছে বলে জানান তিনি৷ মাতৃমৃত্যু হার, শিশু মৃত্যুহার কমানোসহ বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে বিভিন্ন কাজে সহযোগিতা করার জন্য ডাব্লিউএইচও’র কর্মসূচিগুলোর প্রশংসা করেন তিনি৷ আরো বলেন যে, বাংলাদেশে মিয়ানমারের নাগরিক যাঁরা আশ্রয় নিয়েছেন, তাঁদের স্বাস্থ্য সেবায় ডাব্লিউএইচও কাজ করে যাচ্ছে, যা প্রশংসনীয়৷

শনিবার জলবায়ু বিষয়ক একটি আলোচনায় বক্তব্য রাখবেন শেখ হাসিনা৷ এরপর রাতেই চলে যাবেন সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবুধাবিতে৷ সেখানে আন্তর্জাতিক প্রতিরক্ষা প্রদর্শনী (আইডিইএক্স-২০১৯)-এ যোগ দেবেন৷ চতুর্থ মেয়াদে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেবার পর এই প্রথম বিদেশ সফরে এলেন শেখ হাসিনা৷

তথ্যসূত্র: জেডএ/এসিবি (বাসস)

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close